| |

কোন পথে ময়মনসিংহ? শিক্ষা নগরী নাকি বখাটে তৈরির নগরীতে পরিনত হচ্ছে ময়মনসিংহ?

প্রকাশঃ ডিসেম্বর ২৬, ২০১৬ | ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

loading...

এই শহরের সামনে ভয়ঙ্কর সময় অপেক্ষা করছে। অশিক্ষিত (অ-সুশিক্ষিত) বাবা-মা এর অতি আদর ও শহরে গড়ে ওঠা রাজনৈতিক বড় ভাইদের প্রশ্রয়ে ১৫-১৯ বছরের ছেলে পেলেরা এখন খুনী হয়ে উঠছে। এইদিকে প্রশাসনের সামান্যতম নজর আমরা দেখতে পাচ্ছিনা। তথাকথিত বৃদ্ধ সুশীল সমাজ ও রাজনীতিবিদেরা ‘বিভাগ’ নিয়ে ব্যাস্ত এদিকে রসাতলে যাচ্ছে শহরের যুবসমাজ…..

ময়মনসিংহ নিয়ে ময়মনসিংহের জনপ্রিয় ফেসবুক পেজ ময়মনসিংহ সিটি‘তে কোন পথে শিক্ষা ময়মনসিংহ নামে পোস্ট করা হয়েছে।

পোস্ট টি সরাসরি তুলে ধরা হলো-

কোন পথে ময়মনসিংহ ? শিক্ষা নগর? নাকি বখাটে নগরে পরিনত হচ্ছে ময়মনসিংহ? পেজ পোস্ট লিংক

আমরা ২৩শে নভেম্বর একটি পোস্ট দিয়েছিলাম ময়মনসিংহে গত একবছর বা কিছু বেশী সময়ে ‘বন্ধুদের’ হাতে খুনের ঘটনার। সেখানে আমরা তিনটি ঘটনা উল্লেখ করলেও সংখ্যা এখন চার। শুক্রবার মফিজ উদ্দিন ইনডেক্স প্লাজার পাশে বন্ধুদের হাতে খুন হয়েছেন সিটি কলেজিয়েট স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র ইশতিয়াক আহমেদ তন্ময় ! খুনিরাও জিলা স্কুল সহ বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র !

loading...

এসব ঘটনার পেছনে রয়েছে বিভিন্ন কারণ যার কয়েকটি আমরা বলেছিলাম সেই পোস্টে এবং এগুলো সঠিক। এই শহরের সামনে ভয়ঙ্কর সময় অপেক্ষা করছে। অশিক্ষিত (পড়ুন অ-সুশিক্ষিত) বাবা-মা এর অতি আদর ও শহরে গড়ে ওঠা রাজনৈতিক বড় ভাইদের (পড়ুন বখাটে) প্রশ্রয়ে ১৫-১৯ বছরের ছেলে পেলেরা এখন খুনী হয়ে উঠছে। এইদিকে প্রশাসনের সামান্যতম নজর আমরা দেখতে পাচ্ছিনা। তথাকথিত বৃদ্ধ সুশীল সমাজ ও রাজনীতিবিদেরা ‘বিভাগ’ নিয়ে ব্যাস্ত এদিকে রসাতলে যাচ্ছে শহরের যুবসমাজ…

ভবিষ্যৎ অন্ধকার। “ময়মনসিংহের সবাই পোস্টটি শেয়ার করবেন। সবার দৃষ্টি আকর্ষণ জরুরী”

আগের পোস্টের কিছু অংশঃ
” নভেম্বর ২২, ২০১৬ঃ বলাশপুরে বন্ধুর ছুরিকাঘাতে নিহত হন কেওয়াটখালী রেলওয়ে স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র রাশেদুজ্জামান লিয়ন (১৫)
জানুয়ারি ২৮, ২০১৬ঃ গুলকীবাড়ী মোড়ে বন্ধুদের ছুরিকাঘাতে নিহত হন সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মুহতাসিম বিল্লাহ শাকিল (১৮)
ফেব্রুয়ারী ২, ২০১৫ঃ আকুয়া ভাঙ্গারপুল এলাকায় বন্ধুদের ছুরিকাঘাতে নিহত হন বিবিএ এর ছাত্র মেহেদী হাসান অন্তর (২০)

বখাটে তৈরির কারনঃ
১। বাবা মায়ের অতি আদর, ছোট ছোট অন্যায্য আবদার মেনে নেয়া।
২। হাতে প্রয়োজনের অতিরিক্ত টাকা পয়সা দেয়া।
৩। খুবই অল্প বয়সে হাতে মোবাইল ফোন তুলে দেয়া ।
৪। ফেসবুক ব্যাবহার করছে দেখে ছেলেকে ‘টেক জিনিয়ার’ ভাবা , ইন্টারনেটে কি করছে তার খবর না রাখা ।
৫। স্কুল কলেজের ছেলেদের মোটরবাইক কিনে দেয়া।
৬। শহরে মাঠ ও খেলার যায়গা কমে যাওয়া।
৭। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কারিকুলামের বাইরে বেসিক নৈতিক শিক্ষা না দেয়া।
৮। শহরে মাদকদ্রব্যের সহজলভ্যতা ।
৯। পুরোন অপরাধের বিচার না হওয়া ।
১০। স্কুল কলেজে খেলাধুলা ও অন্যান্য সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড কমে যাওয়া ।
১১। ময়মনসিংহের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন তথা সুশীল সমাজের ‘সমাজ’ বিচ্যুত হয়ে ‘রাজনীতি ও টাকা’র খেলায় ব্যাস্ত থাকা।
১২। অন্যান্য”

 

 

-সম্পাদকীয়তে আপনিও লিখুন ময়মনসিংহ কে নিয়ে।

loading...

 

One response to “কোন পথে ময়মনসিংহ? শিক্ষা নগরী নাকি বখাটে তৈরির নগরীতে পরিনত হচ্ছে ময়মনসিংহ?”

  1. fk says:

    পড়াশোনা ভাল করলেই সাত খুন মাফ এমন concept ময়মনসিংহ এর গার্জিয়ান দের মধ্যে অনেক আগেই তৈরী হইছে যার ফল এখন পাওয়া যাচ্ছে ভবিষ্যৎ এও পাওয়া যাবে।এর জন্য বিশেষভাবে দায়ী চাটুকার মার্কা কিছু অর্থলোভী শিক্ষক যারা students দের কাছ থেকে টাকার বিনিময়ে পড়ায় কিন্তু নেই কোন নৈতিক শিক্ষা।ময়মনসিংহ এর ছেলে-মেয়েদের চলাফেরা দেখলে মনে হয় বাংলাদেশ কিসের গরীব country বাংলাদেশ হলো ধনীর দেশ,কেননা এখানের ছেলে-মেয়েরা এত কম বয়সে যে হারে দামী মোবাইল, ক্যামেরা & বাইক use করে যা বখাটে হওয়ার important source. প্রায় তরূণ-ত্রূণী নৈতিকতাকে ignore করে অসামাজিক কাজে লিপ্ত হচ্ছে, কে কতটা মেয়ে বা ছেলে বন্ধু জোটাতে পারে যা অনেক মারামারি ঘটনার সৃষ্টি করে।বখাটে যে হারে বাড়ছে দেখে মনে হয় ময়মনসিংহ স্কুল আছে যেখানে বখাটে তৈরী হয়।মেয়েদের মনে হয় ছেলেরা ভোগ বস্তু মনে করে যা চরম নৈতিক অবক্ষয়, একজন ময়মনসিংহবাসি হিসেবে আমার লজ্জা করে ; এই অন্যায় গুলো দেখি বলার মতো শক্তি আমার নাই কেননা আমরা তো রাজনৈতিক লোক নই।এখন power এর জন্য ময়মনসিংহ এর ১৩-১৯ বছরের ছেলে পেলে রাজনীতি করে,দেশ প্রেম থেকে রাজনীতি কম মানুষী করে।ময়মনসিংহ তরুণী রাও কম অন্যায় করে না, তাদের চলাফেরা এতটাই দৃষ্টিকটু যা বখাটে তৈরীর উৎস ছাড়া কিছু নয়।যাই হোক এগুলো বলে লাভ নেই; সামাজিক সচেতনতা ছাড়া এসব এর উন্নতি সম্ভব নয়।সবার আগে শিক্ষানগরী’র শিক্ষা ব্যবসা হটাও তাহলে অনেককিছুই ঠিক হবে আর অভিভাবক এর সচেতনতা আর strictly গার্জিয়ান না হইলে এসব বন্ধ হবে না।।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

loading...
loading...